ভিজিটর সংখ্যা

ই-বুক কালেকশন

প্রয়োজনীয় সব বাংলা 🕮 ই-বুক বা বই, 💻 সফটওয়্যার ও 🎬 টিটোরিয়াল কালেকশ সংগ্রহ করতে!

আপনারা সামান্য একটু সময় ব্যয় করে ,শুধু এক বার নিচের লিংকে ক্লিক করে এই কালেকশ গুলোর মধ্যে অবস্থিত বই ও সফটওয়্যার এর নাম সমূহের উপর চোখ বুলিয়ে 👓 👀 নিন।”তাহলেই বুঝে যবেন কেন এই ফাইল গুলো আপনার কালেকশনে রাখা দরকার! আপনার আজকের এই ব্যয়কৃত সামান্য সময় ভবিষ্যতে আপনার অনেক কষ্ট লাঘব করবে ও আপনার অনেকে সময় বাঁচিয়ে দিবে।

বিশ্বাস করুন আর নাই করুনঃ-“বিভিন্ন ক্যাটাগরির এই কালেকশ গুলোর মধ্যে দেওয়া বাংলা ও ইংলিশ বই, সফটওয়্যার ও টিউটোরিয়াল এর কালেকশন দেখে আপনি হতবাক হয়ে যাবেন !”

🎯বিস্তারিত 👀 জানতেঃ
এখানে 👆 ক্লিক
অথবা
এখানে👆ক্লিক করুন
অথবা
এখানে👆ক্লিক করুন

📲 মোবাইল থেকে বিস্তারিত
এখানে 👆 ক্লিক করুন

🎯সুন্দর ভাবে বুঝার জন্যঃ

📥 ডাউনলোড লিংকঃ

এখানে👆ক্লিক করুন

http://vk.com/doc229376396_437430568


📚🕮 eBook Page: এখানে👆ক্লিক
🎭eBooks Groups: এখানে👆ক্লিক
👓👀 Online Preview: এখানে👆ক্লিক

জনপ্রিয় পোস্টসমূহ

Search

লোড হচ্ছে...
Blogger দ্বারা পরিচালিত.
Visit প্রয়োজনীয় বাংলা বইto get more interesting Computer and Educational Bangla Books

Gadget

এই সামগ্রীটি এখনও এনক্রিপ্ট করা সংযোগগুলির মাধ্যমে উপলব্ধ নয়।

📱মোবাইল দিয়ে পড়তে ও ডাউনলোড করতে যাদের সমস্যা হয়ঃ তারা নিচের লিংকে ক্লিক থেকে অ্যাপটা ডাউনলোড করে নেন... মোবাইলে বই পড়ার জন্য এটি একটি অনন্য অ্যাপ , একবার ইন্সটল করে দেখুন আশা এর সব ফিচার দেখে আপনি এই অ্যাপস এর ফ্যান হয়ে যাবেন । 📳মোবাইল স্ক্রিন ভার্সনে অর্থাৎ যে কোন সাইজের স্ক্রিনে অটোমেটিক এডজাস্ট হওয়া। (আপনাকে ডানে-বামে বা উপরে-নিচে মুভ করা লাগবে না) প্রয়োজনীয় সকল শিক্ষণীয় বাংলা বই 📚 ফ্রি তে পড়তে পারবেন , এই বইঘর Boighor এন্ড্রয়েড অ্যাপ খুব শিগ্রই সবার প্রিয় অ্যাপ হবে , কারন এতে আছে 🔖 বুকমার্ক মেনুঃ ক্লিক করে যে কোন অধ্যায়ে সরাসরি যেতে পারবেন, 🌙 নাইট মোড বা ভিউ, 🔍 বইয়ের 📑 মধ্যে যে কোন টেক্সট সার্চ করার সুবিধা, 📝 বইয়ের টেক্সটকে পছন্দমত হাইলাইট বা মার্ক , আন্ডারলাইন ✐ড্র করা যাবে (সো চিন্তা করে দেখুন এর চাইতে সহজ ও ইউজার ফ্রেন্ডলি কোন বাংলা বই পড়ার এন্ড্রয়েড অ্যাপ আছে কিনা!!! ) আর যে কোন লেখক ও পাবলিশারের একমাত্র নির্ভরযোগ্য অ্যাপ হবে , কারন আমাদের চেয়ে বেশি সিকুরিটি আর কেউ দিতে পারবে না ...ইনশাআল্লাহ
গুগল প্লে স্টোর গিয়ে " Boighor by chorui লিখে সার্চ দিন
এন্ড্রোয়েড অ্যাপ্লিকেশনে এখানের সব বই মোবাইল স্ক্রিনে পেতেঃ
এখানে👆ক্লিক করুন
https://play.google.com/store/apps/details?id=com.cgd.ebook.boighor

শুক্রবার, ১ জানুয়ারী, ২০১৬

postheadericon মানব চিকিৎসায় ফুল অর্থাৎ প্রাথমিক চিকিৎসায় বিভিন্ন ফুলের ভেষজ গুন


ফুল ভালবাসে সবাই। যে কোন ফুলের সৌন্দর্য মনের ক্ষুধা মেটায়। যে কোন পরিবেশকে সুন্দর করে মন প্রশান্তিতে ভরে দেয়। নিরন্তর ফুলের শোখা দেখে মনে হয় দীর্ঘ এক স্বপ্ন দেখতে দেখতে পার করে দেই পৃথিবীর জীবন। কিন্তু না। অপার্থিব অনুভূতির মত পার্থিব জীবন নয়। দেহের মধ্যে বাসা বাধে নানা রকম অসুখ বিসুখ। স্বপ্ন প্রশান্তি তখন ধীরে ধীরে ভাঙ্গতে শুরু করে। কোন কোন সময় সে অবস্থায় সুন্দর ফুল আর পৃথিবীকে বড্ড কুৎসিত মনে হয়। কিন্তু ফুলের সৌন্দর্যের মত অনেক ফুল গাছের মধ্যেই রয়েছে আর এক মহা সুন্দর- সেসব গাছের ভষজ গুণ। এসব ফুলগাছ আঙিনায় রেখে একদিকে যেমন পেতে পারি স্বর্গের আনন্দ অন্যদিকে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াহীন পরিবেশ সম্মতভাবে সারিয়ে তুলতে পারি আমাদের অসুখগুলো। প্রাথমিক চিকিৎসা তো বটেই- ক্যান্সারের মত কঠিন রাগও সারিয়ে তুলতে পারি ফুল গাছ দিয়ে।

গাঁদা ফুল

হঠাৎ শরীরে কোথাও কেটে গেলে গাঁদা ফুলের পাতার রস অব্যর্থ। পাতা ঘষে বা বেঁটে সে কাটা জায়গায় প্রলেপ দিলে তৎক্ষণাৎ রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যায়, ব্যথা কমে যায় ও তাড়াতাড়ি জোড়া লাগে। পাতার রস দিয়ে ঘা দুয়ে দিলে দ্রুত তা সেরে যায়। গাঁদা ফুলের পাঁপড়ি সামান্য মাখনের সাথে মিশিয়ে অল্প পরিমাণে কয়েকদিন খেলে অর্শের রক্ত পড়া বন্ধ হয়।

অপরাজিতা

প্রসাব কম হলে বা কষ্ট পেলে অপরাজিতা গাছের শিকড়ের ছাল পানিতে সিদ্ধ করে দু’চার দিন খেলেই এ অসুবিধা চলে যাবে। সহজ প্রসবের জন্য সাদা অপরাজিতার শিকড় বাঁটা ১ গ্রাম পরিমাণ খাওয়ালে উপকার পাওয়া যেতে পারে। আর নীল অপরাজিতার শিকড় এক চামচ ঘি, মধু বা চিনির সঙ্গে খেলেই অবশ্যই শুক্র রোগ সেরে যাবে এবং শুক্র বৃদ্ধি হবে। ঠান্ডা লেগে চোখ দিয়ে পানি পড়েতে থাকলে বা চোখে জালা যন্ত্রণা হলে নীল অপরাজিতার বীজ গুঁড়ো করে ২ গ্রাম পরিমাণ নিয়ে তাতে সামান্য চুন মিশিয়ে গরম দুধ বা পানি দিয়ে রাতে শোয়ার আগে খেতে হবে। নীল অপরাজিতার শিকড় বাঁটা খেলে বাত রোগে উপকার পাওয়া যায়।

নয়ন তারা

ব্লাড ক্যান্সারের চিকিৎসায় নয়নতারা অনন্য। এ রোগে আক্রান্ত হলে নয়নতাা গাছের কচি ডালের টাটকা রস ১০ মিলিলিটার বা ২ চা চামচ পরিমাণ কয়েকদিন রোজ সকাল বিকালে খেলে এ রোগের উপশম হয়। ইতোমধ্যেই ভেষজ বিজ্ঞানীরা এ গাছের ডাল ও পাতা থেকে ক্যান্সার নিরাময়ের প্রায় ৭০টি ওষুধ আবিষ্কার করেছেন। শরীরের কোথাও কেটে গেলে বা ঘা বিষাক্ত হয়ে পেকে গেলে গাছের রস সাত দিন ব্যবহার করলে কাটা জোড়া লেগে যায় এবং ঘা সেরে যায়। ব্লাড প্রেসার বা রক্ত চাপ বেড়ে গেলে নয়নতারা গাছের শিকড়ের রস এক চা চামচ পরিমাণ সকালে খালি পেটে একবার করে ৩-৪ দিন খেলে কিছুটা উপকার হতে পারে। বহুমূত্র বা ডায়াবিটিস রোগ সারাতে প্রতিদিন সকালে সাদা নয়নতারা ফুল গাছের দু’টি পাতা খালি পেটে চিবিয়ে খেলে রোগ মোটেই বাড়তে পারে না। পাতা বেটে রস খেলেও একই উপকার। এতে বহুমূত্র রোগ সারে না, তবে নিয়ন্ত্রণে থাকে। বাসায় কিছু প্রাথমিক চিকিৎসা যেমন বিষ পিঁপড়া, মাঝালি পিঁপড়া, বোলতা, মৌমাছি ইত্যাদি পোকা কামড়ালে বেশ যন্ত্রণা হয়, কামড়ানো জায়গা ফুলে যায়। সে জায়গায় নয়নতারার পাতা হাতে ডলে রস লাগালে তাৎক্ষণিকভাবে উপকার পাওয়া যায়।


বকফুল

বকফুলের গাছ থেকে এক ধরনের আয়ুর্বেদিক তেল তৈরি করা হচ্ছে। এ তেল ব্যবহারে গণোরিয়া রোগে সুফল পাওয়া যায়। বুকে সর্দি বসলে এক চা চামচ পরিমাণ বকফুলের রস দিনে ৩ বার খেলে বসে যাওয়া সর্দি নরম হয়ে বেরিয়ে আসে। নাকে এলার্জি অর্থাৎ বার বার হাঁচি আসে, নিচু হলেই নাক দিয়ে পানির মত সর্দি গড়িয়ে পড়ে। এরূপ হলে পাতার টাটকা রস ২ চা চামচ পরিমাণ হালকা গরম করে খেলে উপকার পাওয়া যায়। এ ছাড়া নাকের ছিদ্রে তিন ফোঁটা করে পাতার ঠান্ডা রস দিলে পানির মত সর্দি পড়া বন্ধ হবে। বকফুলে আছে প্রচুর ভিটামিন এ বা ক্যারোটিন। তাই রাতকানা রোগ হলে ফুল ভাজা নিয়মিত খেলে বা টাটকা পাতার রস ঘি দিয়ে গরম করে রোজ সকালে ১ চা চামচ খেলে উপকার পাওয়া যায়। গরম শিশিতে রেখে বহুদিন তা ব্যবহার করা যায়।

জবা

যে কোন সর্দি কাশি হলে জবা গাছের ৩-৪ গ্রাম টাটকা শিকড় পরিষ্কার করে পানি দিয়ে বেঁটে তার আধা কাপ ঠান্ডা পানিতে মিশিয়ে পর পর তিনদিন রোজ সকাল বিকালে খেলে তা সেরে যায়। টাক পোকায় অনেক সময় চুল গোড়া থেকে কেটে দেয়। সেখানে নতুন চুল গজালেও তা খেতে থাকে। এ অবস্থায় জবা ফুল বেঁটে গোসলের পর ভিজে চুল শুকিয়ে গেলে ঐ জায়গায় লাগায়ে কয়েকদিন প্রয়েপ দিলে এ অসুবিধা সেরে যায়। অতিরিক্ত ঋতুস্রাব কমাতে ৫-৭ টি জবাফুল সামান্য ঘি দিয়ে ভেজে খেলে তা নিয়ন্ত্রিত হয়। চোখ ওঠা সারাতে জবা ফুল বেঁটে চোখের উপর এবং নীচের পাতায় প্রলেপ দিলে উপকার পাওয়া যায়।

সন্ধ্যামণি

পেট পরিষ্কার করতে সন্ধ্যামণি ফুলের পাকা কালো শুকনো বীজ ৩-৪ গ্রাম ভালভাবে গুঁড়ো করে রাতে ভাত খাবার পর শোয়ার সময় এক গ্লাস ঠান্ডা পানির সাথে খেলে সকালে কয়েক বার পায়খানার সাথে পেটে জমে থাকা মল বেরিয়ে পেট পরিষ্কার হয়ে যায়। অর্শ রোগ সারাতে ৩০ গ্রাম পরিমাণ টাটকা শিকড় মাটির হাঁড়িতে ১৫০ মিলি পানি দিয়ে সিদ্ধ করে পানি চার ভাগের এক ভাগ হলে হাঁড়ি চুলা থেকে নামাতে হবে। সিদ্ধ করা সেই পানি সেঁকে খেলে অর্শ রোগ কমে যাবে।

করবী

করবী গাছের কচি পাতার টাটকা রস চোখে দিলে চোখ ওঠায় আরাম পাওয়া যায়। দিনে দু’বার দিতে হবে। আঘাত লেগে ফুলে গেলে ৫০ গ্রাম কচি পাতা কুচি কুচি করে কেটে মাটির পাত্রে ১০০ মিলিলিটার পানি দিয়ে সিদ্ধ করে পানি কাইয়ের মত হলে তা সহ্যমত গরম অবস্থায় কয়েকদিন ফোলা জায়গা লাগালে ফোলা কমে যায়। বিছে, মৌমাছি, বোলতা, ভীমরুল কামড়ালে কচি পাতা সিদ্ধ করে তার পানি দিয়ে কামড়ানো জায়গা ধুয়ে দিলে সেখানকার বিষ নষ্ট হয়, ফোলা যন্ত্রনাও কমে যায়। খোস পাঁচড়া সারাতে ব্যবহার করা হয় গাছের ছাল বাটা রস। করবীর শিকড় দুধ দিয়ে বেঁটে গোসলের তিনঘণ্টা আগে মাথায় মাখলে অকালে চুল পাকা বন্ধ হয়ে যায়।

মাধবী লতা

হাঁপানীর শ্বাস কষ্ট হলে মাধবী লতা গাছের কচি পাতা ও ডাল সামান্য পানি দিয়ে বেঁটে ২-৩ চা চামচ পরিমাণ খেলে হাঁপির টান ও শ্বাস কষ্ট কমে যায়। বিষাক্ত ঘা সারাতে শুকনো ছালের গুঁড়ো ঘায়ের উপর ছড়িয়ে দিয়ে পরিষ্কার পাতলা সুতি কাপড় দিয়ে জড়িয়ে বেধে দিলে ৪-৫ দিনের মধ্যে ঘা শুকিয়ে যায়। তবে রোজ সকালে ঘা পরিষ্কার করে আবার দিতে হবে। চুলকানি-পাঁচড়া হলে গোসলের পর ভালভাবে পানি মুছে পাতা ও কচি ডাল চন্দনের মত মিহি করে বেঁটে সুন্দর করে লাগিয়ে দিলে ৪-৫ দিনের মধ্যেই সুফল পাওয়া যায়। পুরনো বাত সারাতে ২ চা চামচ পরিমাণ পাতার রস আধা কাপ ঠান্ডা পানিতে মিশিয়ে রোজ সকালে একবার করে খেলে এ রোগে আরাম পাওয়া যায়।

লজ্জাবতী

দীর্ঘদিন ধরে ঘা কমছে না। সে ক্ষেত্রে ৫ গ্রাম টাটকা পাতা সামান্য পানি দিয়ে বেটে ৩০ মিলি পরিমাণ জ্বাল দেয়া গরুর দুধে মিশিয়ে দিনে একবার খেতে হবে। এছাড়া তাজা পাতা বেঁটে ঘায়ে লাগিয়ে শুকনো পাতলা কাপড় দিয়ে বেঁধে দিলে তা সেরে যায়। এ সময় লবণ না খাওয়াই ভাল। দাঁতের মাড়ির ক্ষতে পাতাসহ ডাঁটা ১০-১২ গ্রাম বেঁটে ক্বাথ তৈরি করে ১০-১৫ মিনিট মুখে নিয়ে বসে থাকলে ধীরে ধীরে তা সেরে যায়। দিনে ২-৩ বার এভাবে মুখে রেখে কুলি করলে উপকার পাওয়া যায়। সাদা আমাশয় সারাতে লজ্জাবতীর পাতাসহ ডাঁটা ১০ গ্রাম ১ গ্লাস পানিতে সিদ্ধ করে ২-৩ দিন রোজ সকাল সন্ধ্যায় ছেঁকে সে পানি পান করলে উপশম পাওয়া যায়। হাত পায়ের জ্বালা যন্ত্রণা কমাতে শিকড়সহ গাছ ১০ গ্রাম পরিমাণ ৪ কাপ পানিতে জ্বাল দিতে দিতে যখন পানি ১ কাপের মত হবে তখন তা নামিয়ে ঠান্ডা করে ছেঁকে খেতে হবে।

শিউলী

জ্বর সে নতুনই হোক বা পুরানোই হোক, ২ চা চামচ পরিমাণ শিউলী পাতার রস একটু গরম করে সকাল বিকাল খেলে জ্বর ভাল হয়ে যাবে। এ ছাড়া এ রোগে ৬/৭টি কচি পাতা সামান্য আদা দিয়ে বেঁটে সে রস ছেঁকে খেলে উপকার পাওয়া যায়। এতে শরীরে জ্বালা বা দাহ কমাতে ভাল ফল দেয়। ক্রিমি কমাতে ২ চা চামচ পরিমাণ পাতার রস রোজ সকাল বিকাল কয়েকদিন খাওয়ালে উপকার পাওয়া যায়। শিশুরা তিতা রস খেতে চায়না। তাই শিশুদের জন্য তিতা রসের সাথে একটু চিনি মিশিয়ে ১ চা চামচ খাওয়াতে হবে। অরুচি হলে শিউলী পাতা ঘিয়ে ভেজে খেলে বা কচি পাতা মুগডালে বেঁটে বড়া বানিয়ে খেলে মুখে রুচি আসে। কফ বের করতে পাতার রস ২ চা চামচ একটু গরম করে খেতে হবে। এতে বাত রোগেরও কিছুটা উপশম হয়। শিউলী গুড়ো সামান্য পানিতে গুলে মাথায় সব জায়গায় ভালভাবে ঘষে কয়েকদিন মাখলে খুসকি চলে যায়।

তরুলতা বা কুঞ্জলতা

যাদের রাতে ভাল ঘুম হয়না তরুলতা গাছের শুকনো ডাল ও পাতার গুঁড়ো ৩ চা চামচ পরিমাণ, ঘি ১ চা চামচ এবং সমপরিমাণ মধু বা চিনি মিশিয়ে তাতে শোয়ার আগে খেয়ে দেখতে পারেন, সুনিদ্রা হবে। কেথাও কেটে গিয়ে বা আঘাত লেগে শরীরে যদি বিষাক্ত ঘা হয়ে যায় তবে কচি ডাল পাতা বেঁটে তার রস দিয়ে ঘা ভালবাবে ধুয়ে দিলে উপকার পাওয়া যায়। শুকনো গাছের গুঁড়ো ঘায়ের উপর ছড়িয়ে দিয়েও উপকার পাওয়া যায়। পিঠে ফোঁড়া হলে পাত বেটে প্রলেট দিলে ফোঁড়া পেকে ফেটে যায়। অর্শ রোগ কমাতে গাছের পাতা বেঁটে ২ মিলি বা ৪ চা চামচ রস ২ চা চামচ ঘি দিয়ে খেলে উপকার হবে। উচ্চ রক্ত চাপের রোগীর অর্শ সারাতে ঘি ছাড়াই খাবেন।

টগর

ক্রিমি কমতে ৫ গ্রাম পরিমাণ তাজা শিকড় সামান্য পানি দিয়ে বেঁটে সকালে খেলে মৃত ক্রিমি বেরিয়ে আসে। যে কোন কারণে দাঁতে যন্ত্রণা হলে শিকড় পরিষ্কার করে অল্প করে চিবালে যন্ত্রণা কমে যায়। এ সময় লাল বা থুতু ফেলে দিতে হবে। গাছের সাদা কষ দিনে দু’তিন ফোঁটা চোখে দিলে তিন দিনেই চোখ ওঠা ভাল হয়ে যায়। চোখ লাল হলে তাও কেটে যায়। বিষাক্ত ক্ষতে টগর গাছের কষ ও রস বিশেষ উপকারি। দুধের মত আঠা বা কষ দিনে একবার ক্ষত স্থানের উপর লেপে দিলে জ্বালা যন্ত্রণা কমে ও তাড়াতাড়ি সেরে যায়।







সম্পূর্ণ বই সমূহ বইঘর অ্যাপসে ফ্রি তে পাওয়া যাবে …  গুগল প্লে স্টোর গিয়ে Boighor by chorui লিখে সার্চ দিন
অথবা এখানে👆ক্লিক করুন
https://play.google.com/store/apps/details?id=com.cgd.ebook.boighor
মোবাইলে বই পড়ার জন্য এটি একটি অনন্য অ্যাপ… এই অ্যাপসে ইউনিকোড ও স্বচ্ছ টেক্সট ফরম্যাটে মোবাইল স্ক্রিন ভার্সনে প্রয়োজনীয় সকল শিক্ষামূলক বাংলা বই 📚 (PSC, JSC, SSC, HSC ও  BCS এর সকল প্রয়োজনীয় সব লেকচার শিট ও নোট )বা ই-বুক পাওয়া যাবে..!
এই অ্যান্ড্রয়েড ও আইফোন অ্যাপ্লিকেশনটিতে রয়েছে বিখ্যাত সব লেখকের বাংলা বইয়ের এক বিরাট সংগ্রহ যা ক্রমে ক্রমে আরও সমৃদ্ধ হচ্ছে । এখানে পড়ালেখার যাবতীয় সব লেকচার শিট সরবরাহ করছেন বাংলাদেশের বিখ্যাত সব কোচিং সেন্টারের শিক্ষকরা ...তাছাড়া আমার সকল ইবুক তো থাকছেই!!  এছাড়া প্রতিনিয়ত নতুন শিক্ষামূলক বই আপডেট হচ্ছে ... “ প্রত্যেক বইতে 🔖 বুকমার্ক মেনুঃ (ক্লিক করে যে কোন অধ্যায়ে সরাসরি যেতে পারবেন) , নাইট ভিউ 🌙, জুম ভিউ ও 🔎 সার্চ অপশন দেওয়া আছে … এবং কিছু বইয়ের সাথে সুন্দর ও সফট অডিও অপশন দেওয়া আছে যা আপনাকে পড়ে শুনাবে …এবং অটো স্ক্রিন সাইজ পেইজ আপনাকে ডানে-বামে বা উপরে-নিচে মুভ করা লাগবে না …
আপনি এই অ্যাপস বা অ্যাপ্লিকেশন টি ডাউনলোড করে ইন্সটল করে যে কোন একটি বই পড়ে দেখুন ……
আশা এর সব ফিচার দেখে আপনি এই অ্যাপস এর ফ্যান হয়ে যাবেন । কারন এর চাইতে সহজ ও ইউজার ফ্রেন্ডলি কোন বাংলা বই পড়ার এন্ড্রয়েড অ্যাপ আছে বলে আমার মনে হয় না ! বিশ্বাস না হলে জাস্ট একবার কিছু এমবি খরচ করে কয়েকটি বই পড়ে দেখুন ... আমার বিশ্বাস আপনাদের অনেক পছন্দ হবে।আর যে কোন লেখক ও পাবলিশারের একমাত্র নির্ভরযোগ্য অ্যাপ হবে , কারন আমাদের চেয়ে বেশি সিকুরিটি আর কেউ দিতে পারবে না ...ইনশাআল্লাহ
এন্ড্রোয়েড অ্যাপ্লিকেশনে শিক্ষামূলক সব বই মোবাইল স্ক্রিনে পেতেঃ এখানে👆ক্লিক করুন
https://play.google.com/store/apps/details?id=com.cgd.ebook.boighor
নোটঃ - প্রত্যেকটি শিক্ষামূলক বইসমূহের জন্য আলাদা আলাদা এন্ড্রয়েড অ্যাপ ইন্সটল করা ভালো, নাকি একটা অ্যাপে সবগুলো মোবাইল স্ক্রিন ভার্সন বই পাওয়া ভালো!!!!
এখন থেকে আর অনেক গুলো বাংলা অ্যাপ ইন্সটল করে স্মার্ট ফোনের ইন্টারনাল স্টোরেজ ও র‍্যাম নষ্ট করা লাগবে না !!! জাস্ট একটা এন্ড্রয়েড অ্যাপ ইন্সটল করলেই সব শিক্ষামূলক ও প্রয়োজনীয় সকল বই অনেক ফিচার  সহ পেয়ে যাবেন ...!!!

এই অ্যাপ এর সুবিধা সমূহ


🎭 ফেইসবুক গ্রুপ থেকে শিক্ষণীয় ও প্রয়োজনীয় সকল বাংলা সরাসরি 📥ডাউনলোড 👆 করতে!
সকল প্রকার শিক্ষণীয় ই-বুক বা পিডিএফ বই এখানে আপলোড করা হয়েছে ... জাস্ট ক্লিক এন্ড ডাউনলোড ...



প্রয়োজনীয় সব বাংলা 🕮 ই-বুক বা বই, 💻 সফটওয়্যার ও 🎬 টিটোরিয়াল কালেকশ সংগ্রহ করতে!
🎯 আপনারা সামান্য একটু সময় ব্যয় করে,শুধু এক বার নিচের লিংকে ক্লিক করে এই কালেকশ গুলোর মধ্যে অবস্থিত বই ও সফটওয়্যার এর নাম সমূহের উপর চোখ বুলিয়ে 👓 👀 নিন।”তাহলেই বুঝে যবেন কেন এই ফাইল গুলো আপনার কালেকশনে রাখা দরকার! আপনার আজকের এই ব্যয়কৃত সামান্য সময় ভবিষ্যতে আপনার অনেক কষ্ট লাঘব করবে ও আপনার অনেকে সময় বাঁচিয়ে দিবে।
    বিশ্বাস করুন আর নাই করুনঃ-“বিভিন্ন ক্যাটাগরির এই কালেকশ গুলোর মধ্যে দেওয়া বাংলা ও ইংলিশ বই, সফটওয়্যার ও টিউটোরিয়াল এর কালেকশন দেখে আপনি হতবাক হয়ে যাবেন !”
    আপনি যদি বর্তমানে কম্পিউটার ব্যবহার করেন ও ভবিষ্যতেও কম্পিউটার সাথে যুক্ত থাকবেন তাহলে এই ডিভিডি গুলো আপনার অবশ্যই আপনার কালেকশনে রাখা দরকার !
    মোট কথা আপনাদের কম্পিউটারের বিভিন্ন সমস্যার চিরস্থায়ী সমাধান ও কম্পিউটারের জন্য প্রয়োজনীয় সব বই, সফটওয়্যার ও টিউটোরিয়াল এর সার্বিক সাপোর্ট দিতে আমার খুব কার্যকর একটা উদ্যোগ হচ্ছে এই ডিভিডি প্যাকেজ গুলো।আশা করি এই কালেকশন গুলো শিক্ষার্থীদের সকল জ্ঞানের চাহিদা পূরন করবে…!
    আমার আসল উদ্দেশ্য হল, কম্পিউটার ও মোবাইল এইডেড লার্নিং ডিভিডি কার্যক্রম এর মাধ্যমে সফটওয়্যার, টিটোরিয়াল ও এইচডি কালার পিকচার নির্ভর ই-বু বা বইয়ের সহযোগিতায় শিক্ষাগ্রহন প্রক্রিয়াকে খুব সহজ ও আনন্দদায়ক করা। এবং সকল স্টুডেন্ট ও টিচারকে কম্পিউটার ও মোবাইল প্রযুক্তির সম্পৃক্তকরণ এবং সকল শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের প্রযুক্তিবান্ধব করা এবং একটা বিষয় ক্লিয়ার করে বুঝিয়ে দেওয়া যে প্রযুক্তি শিক্ষাকে আনন্দদায়ক করে এবং জ্ঞান অর্জনের প্রতি আকর্ষণ বৃদ্ধি করে…
    🎯 কালেকশ সম্পর্কে বিস্তারিত 👀 জানতেঃ   নিচের লিংকে 👆 ক্লিক করুন
    📲 মোবাইল থেকে বিস্তারিত দেখতে
    🎯 সুন্দর ভাবে বুঝার জন্য নিচের লিঙ্ক থেকে ই-বুক্টি ডাউনলোড করে নিন...
    📥 ডাউনলোড লিংকঃ http://vk.com/doc229376396_437430568


যাদের বইয়ের টিউন গুলো ভালো লাগে ... কিন্তু প্রত্যেক টিউন নিয়মিত আপনার ফেসবুক ওয়ালে দেখতে পাচ্ছেন না ...তারা কষ্ট করে আমাকে ফলো করে রাখুন

    👨 Tanbir Ahmad



    ...অথবা পেইজ নোটিফিকেশন চালু করে রাখুন... প্রয়োজনীয়_বাংলা_বই _Useful -Bangla- e-books


ফেইসুক এপসেঃ পেইজের হোমে গিয়ে উপরের অপশন বারের More অর্থাৎ ••• এই আইকনে ক্লিক করুন Notification ক্লিক করে Status Updates ও অন্য সব সিলেক্ট করে দিন ...


0 মন্তব্য(গুলি):

প্রয়োজনীয় সব বাংলা 🕮ই-বুক

প্রয়োজনীয় সব বাংলা 🕮ই-বুক বা বই, 💻সফটওয়্যার ও 🎬টিটোরিয়াল কালেকশ সংগ্রহ করতে!
আপনারা সামান্য একটু সময় ব্যয় করে ,শুধু এক বার নিচের লিংকে ক্লিক করে এই কালেকশ গুলোর মধ্যে অবস্থিত বই ও সফটওয়্যার এর নাম সমূহের উপর চোখ বুলিয়ে 👓👀 নিন।”তাহলেই বুঝে যবেন কেন এই ফাইল গুলো আপনার কালেকশনে রাখা দরকার! আপনার আজকের এই ব্যয়কৃত সামান্য সময় ভবিষ্যতে আপনার অনেক কষ্ট লাঘব করবে ও আপনার অনেকে সময় বাঁচিয়ে দিবে।
বিশ্বাস করুন আর নাই করুনঃ-“বিভিন্ন ক্যাটাগরির এই কালেকশ গুলোর মধ্যে দেওয়া বাংলা ও ইংলিশ বই, সফটওয়্যার ও টিউটোরিয়াল এর কালেকশন দেখে আপনি হতবাক হয়ে যাবেন !”
আপনি যদি বর্তমানে কম্পিউটার ব্যবহার করেন ও ভবিষ্যতেও কম্পিউটার সাথে যুক্ত থাকবেন তাহলে এই ডিভিডি গুলো আপনার অবশ্যই আপনার কালেকশনে রাখা দরকার !
মোট কথা আপনাদের কম্পিউটারের বিভিন্ন সমস্যার চিরস্থায়ী সমাধান ও কম্পিউটারের জন্য প্রয়োজনীয় সব বই, সফটওয়্যার ও টিউটোরিয়াল এর সার্বিক সাপোর্ট দিতে আমার খুব কার্যকর একটা উদ্যোগ হচ্ছে এই ডিভিডি প্যাকেজ গুলো।আশা করি এই কালেকশন গুলো শিক্ষার্থীদের সকল জ্ঞানের চাহিদা পূরন করবে…!
আমার আসল উদ্দেশ্য হল, কম্পিউটার ও মোবাইল এইডেড লার্নিং ডিভিডি কার্যক্রম এর মাধ্যমে সফটওয়্যার, টিটোরিয়াল ও এইচডি কালার পিকচার নির্ভর ই-বু বা বইয়ের সহযোগিতায় শিক্ষাগ্রহন প্রক্রিয়াকে খুব সহজ ও আনন্দদায়ক করা।
এবং সকল স্টুডেন্ট ও টিচারকে কম্পিউটার ও মোবাইল প্রযুক্তির সম্পৃক্তকরণ এবং সকল শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের প্রযুক্তিবান্ধব করা এবং একটা বিষয় ক্লিয়ার করে বুঝিয়ে দেওয়া যে প্রযুক্তি শিক্ষাকে আনন্দদায়ক করে এবং জ্ঞান অর্জনের প্রতি আকর্ষণ বৃদ্ধি করে…
🎯 কালেকশ সম্পর্কে বিস্তারিত 👀জানতেঃ নিচের লিংকে 👆ক্লিক করুন
www.facebook.com/tanbir.ebooks/posts/777596339006593

এখানে👆 ক্লিক করুন

🎯 সুন্দর ভাবে বুঝার জন্য নিচের লিঙ্ক থেকে ই-বুক্টি ডাউনলোড করে নিন...
📥 ডাউনলোড 👆 লিংকঃ এখানে👆ক্লিক

আপডেট পেতে

আপডেট ই-বুক

Google+

Email পেতেঃ

মন্তব্য দিন